Saturday, September 19, 2020
- Advertisement -
Home ঢালিউড প্রয়াত শিল্পীদের ঘরে নিত্যপণ্য, আবেগাপ্লুত পরিবার।

প্রয়াত শিল্পীদের ঘরে নিত্যপণ্য, আবেগাপ্লুত পরিবার।

বিনোদন প্রতিবেদক:

জনজীবন থেকে শুরু করে বিনোদন দুনিয়ার সবার স্বস্তি কেড়ে নিয়েছে নভেল করোনাভাইরাস। বন্ধ নির্মাতা-শিল্পীদের কাজ। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর মানবসভ্যতার সামনে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে এসেছে কোভিড-১৯।

করোনার কারণে ঘরবন্দি শিল্পী ও কলাকুশলীদের বেহাল দশা। বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির কল্যাণে ঘরে বসেই তিনবেলা খাবার পাচ্ছেন অসহায় শিল্পীরা। এদের পাশাপাশি প্রয়াত শিল্পীদের পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি। তাঁদের ঘরে পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রী। এসব সামগ্রী পেয়ে আবেগাপ্লুত প্রয়াত শিল্পীর পরিবারের সদস্যরা।
২০১৭ সালে মারা যান মিজু আহমেদ। গতকাল তাঁর বাসায় নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রী পাঠানোর পর, তা হাতে পেয়ে আবেগে কেঁদে ফেলেন তাঁর স্ত্রী পারভীন আহমেদ। তিনি বলেন, ‘আমরা দুস্থ বা অসচ্ছল নই। সৃষ্টিকর্তা আমাদের যা দিয়েছেন, আলহামদুলিল্লাহ। হঠাৎ সমিতি থেকে নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রী পাঠানো হয়েছে। আবেগে চোখের পানি ধরে রাখতে পারিনি। কারণ এটা কোনো দান নয়, এটা প্রয়াত শিল্পীর পরিবার হিসেবে সম্মান। আমাদের মনে রেখেছে, এজন্য সমিতির প্রতি কৃতজ্ঞ।’
অন্যদিকে প্রয়াত শিল্পী মুসলিম, সালাম ও বিপুলের পরিবার তেমন ভালো নেই। তাদের বাসায়ও নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান বলেন, ‘আমার দৃষ্টিকোণ থেকে শিল্পীরা কখনো প্রয়াত হন না। তাই তাঁদের সম্মান জানানো, তাঁদের পরিবারের খবর রাখা আমাদের দায়িত্ব। সাহায্য নয়, করোনার এই সময় প্রয়াত শিল্পীদের পরিবার বিপাকে আছে। তাই সমিতি থেকে যা করণীয় তা-ই করছি। সবাই দোয়া করবেন, যেন শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত আমরা কাজ চালিয়ে যেতে পারি।’
এর আগে একাধিকবার শিল্পী সমিতির পক্ষ থেকে অসচ্ছল শিল্পীদের সহায়তা করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

সর্বশেষ