Monday, September 28, 2020
- Advertisement -
Home ঢালিউড প্রতিবন্ধীকে দোকান করে দিলো জায়েদ খানের ‘সাপোর্ট’

প্রতিবন্ধীকে দোকান করে দিলো জায়েদ খানের ‘সাপোর্ট’

মোঃ নাঈম হোসেন, চিত্রজগত ডট কমঃ করোনা পরিস্থিতিতে একাধিকবার সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিয়েছে জায়েদ খানের মানবকল্যাণ মূলক সংগঠন ‘সাপোর্ট’। সাম্প্রতি সংগঠনটির নেতৃবৃন্দ শারিরীক প্রতিবন্ধী ইমদাদুল নামের এক ভিক্ষুককে একটি দোকান প্রতিষ্ঠা করে দেওয়ার আবদার করেন সংগঠনটির চেয়ারম্যান জায়েদ খানের কাছে।

পিরোজপুর সদর উপজেলার কৃষ্ণচূড়া ভাইজোড়া গ্রামের শারিরীক প্রতিবন্ধী মো. ইমদাদুল শিকদার। উপার্জনে অক্ষম। তার পরিবারের সদস্য সংখ্যা চারজন। বড় ছেলে ষষ্ঠ শ্রেণিতে পড়ে আর ছোট ছেলে প্রথম শ্রেণিতে পড়ে। মানুষের কাছে সাহায্য চেয়ে চেয়ে জীবিকা নির্বাহ করেন।

‘সাপোর্ট’ এর মাধ্যমে জায়েদ খাঁন বিষয়টি জানতে পারলে তার আশা পূরণের জন্য এগিয়ে আসেন তিনি। পিরোজপুরের সুযোগ্য পুলিশ সুপার জনাব হায়াতুল ইসলাম খান উপস্থিত থেকে দোকান উদ্বোধন করেন । “সাপোর্ট” এর পক্ষ থেকে আমরা কৃতজ্ঞ পুলিশ সুপার মহোদয়ের কাছে, এই মহতী উদ্যোগে আমাদের পাশে থাকার জন্য।’

জায়েদ খান নিজের ফেসবুক আইডিতে লিখেন , “নবীজীর শিক্ষা না করি ভিক্ষা”।আজকে থেকে ভিক্ষা ছেড়ে দোকানে প্রতিবন্ধী পিরোজপুরের ইমদাদুল।পুলিশ যে সব সময় মানবিকতার প্রতীক আবারও প্রমান করলেন পিরোজপুরের সুযোগ্য পুলিশ সুপার হায়াতুল ইসলাম খান।করোনা মহামারি উপেক্ষা করে ছুটে এলেন মানবতার কাজে।ফিতা কেটে,মোনাজাতের মাধ্যমে উদ্ধোধন করে দিলেন ইমদাদুল হকের দোকান।প্রথমেই নিজে টাকা দিয়ে কেনাকাটা করে সবাইকে উপহার দিলেন এবং ঘোষনা দিলেন ভবিষ্যতে সাপোর্টের এমন কর্মকান্ডে তিনি আর্থিক ও মানসিকভাবে যে কোন সহযোগীতা করতে তিনি তৈরী।উপস্থিত ছিলেন আমার বন্ধুবর,লেখক,কবি মোল্লা আজাদ,অতি: পুলিশ সুপার,পিরোজপুর।উপস্থিত ছিলেন অফিসার-ইন-চার্জ,নুরুল ইসলাম বাদল,সদর থানা,পিরোজপুর,এবং সাপোর্ট এর নেতৃবৃনদ।আমি কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি পিরোজপুরের পুলিশ সুপার সহ জেলা পুলিশকে এই মানবতার কাজে আমাদের পাশে থাকার জন্য।কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি সাপোর্ট এর নেতৃবৃনদ সহ সবাইকে যারা আমাকে এই মহতী কাজটি করতে সহযোগীতা করেছেন।আবারও বলি সদিচছা থাকলে আপনি যে কোন কাজ করতে পারবেন।আজকেই একটা শুরু করে দেখেন না।জয় হোক মানবতার,জয় হোক “সাপোর্ট”এর।

এ নায়ক আরও বলেন, ‘স্ত্রী ও দুই সন্তান নিয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছিল ইমদাদুল। ছোটখাটো একটি মুদি টাইপ দোকান করতে পারলে তার আর মানুষের কাছে আর হাত পাততে হবে না। আজ থেকে ইমদাদুলের মানুষের কাছে হাত পেতে চলার দিন শেষ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

সর্বশেষ