Monday, July 13, 2020
- Advertisement -
Home ডাক্তার গরমে আমের যত মহা গুন

গরমে আমের যত মহা গুন

নিজেস্ব প্রতিবেদক:

গ্রীষ্মের এই সময়ে বাজারে পাওয়া যাচ্ছে পাকা আম। আম খেলেও এর স্বাস্থ্য উপকারিতা সম্পর্কে আমরা অনেকেই জানি না। গরমের প্রচণ্ড তাপ থেকে দেহ ও ত্বককে রক্ষা করতে পারে এই ফল।
আম প্রোটিন, ফাইবার, ভিটামিন সি, ভিটামিন এ, ফলিক অ্যাসিড, ভিটামিন বি-৬, ভিটামিন কে এবং পটাশিয়ামসমৃদ্ধ, যা বিভিন্ন রোগের জন্য খুবই উপকারী।এ ছাড়া ম্যাগনেসিয়াম, আয়রন, ক্যালসিয়াম, বিটা ক্যারোটিন, কপার, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। এতে ফ্যাটের পরিমাণ খুব কম। এ ছাড়া সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মির ক্ষতিকর প্রভাব থেকে ত্বককে রক্ষা করে।
গরমে পাকা আম খেলে যত উপকার-

১. আমে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন-ই, যা যৌন জীবনকে উন্নত করতে সাহায্য করে।
২. আম হজমের সমস্যা দূর করে।
৩.শরীরকে ঠাণ্ডা রাখে।
৪. রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়।
৫. চোখে স্বাস্থ্যের উন্নতি ঘটাতে সাহায্য করে।
৬. গাছ পাকা আম ডায়াবেটিস রোগীদের ক্ষেত্রে সুগার লেভেল ঠিক রাখতে সাহায্য করে।
৭. কোলন, স্তন, প্রস্টেট ও লিউকেমিয়া ক্যান্সার থেকে রক্ষা করে আম।
৮. ব্রণ ও ত্বকের সমস্যা থেকে রক্ষা করে আম।অনেক ক্ষেত্রে পাকা আমের তুলনায় কাঁচা আমের গুণ আরও বেশি। কাঁচা আম বা আমের রসে পটাশিয়াম থাকায় প্রচণ্ড গরমে তা শরীর ঠান্ডা রাখতে সহায়তা করে। কাঁচা আমের গুণ প্রসঙ্গে পুষ্টিবিদেরা বলেন, ১০০ গ্রাম কাঁচা আমে পটাশিয়াম থাকে ৪৪ ক্যালরি। এ ছাড়া ৫৪ মিলিগ্রাম ভিটামিন সি ও ২৭ মিলিগ্রাম ম্যাগনেশিয়াম থাকে। আসুন জেনে নেয়া যাক কাঁচা আমের অজানা সব উপকারিতা-

১। ওজন কমাতে পারে কাঁচা আম
যাঁরা ওজন কমাতে বা শরীরের বাড়তি ক্যালরি খরচ করতে চান, তাঁদের জন্য এখন আদর্শ ফল কাঁচা আম। পাকা মিষ্টি আমের চেয়ে কাঁচা আমে চিনি কম থাকে বলে এটি ক্যালরি খরচে সহায়তা করে। যারা ওজন কমাতে চান তারা কাঁচা আম নির্দ্বিধায় খেতে পারেন। কারণ শরীরের চর্বি কাটতে কাঁচা আমের জুড়ি নেই। কোথাও কেটে গেলে কাঁচা আম খান। ক্ষতস্থান দ্রুত শুকিয়ে যাবে।
২। সকালের বমি ভাব দূর করে
অনেকেরই সকালে উঠে বমি বমি ভাব হয়। বিশেষ করে অন্তঃসত্ত্বা যাঁরা। এ সমস্যা দূর করতে পারে কাঁচা আম।
৩। রক্ত সঞ্চালন বাড়ায়
কাঁচা আমে থাকা কপার মানব দেহে রক্ত সঞ্চালন বাড়ায়। উচ্চ মাত্রার পটাশিয়াম শরীরের রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে ভূমিকা রাখে। এই মাত্রার পটাশিয়াম একটি কাঁচা আমে যথেষ্ট পরিমাণে রয়েছে।
৪। গর্ভবতী মায়ের জন্য উপকারী
গর্ভবতী অবস্থায় মায়েরা কাঁচা আম খেলে অ্যান্টি বায়োটিক ক্ষমতা বেশি থাকে সন্তানের। ফলে জন্মানোর পর খুব কমই রোগে আক্রান্ত হয় শিশুরা।
৫। ছোঁয়াচে রোগ থেকে বাঁচায়
কাঁচা আমে আছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন-এ এবং ভিটামিন-সি। যা মানুষের শরীরের জন্য খুবই উপকারী। যে কোনো ধরণের ছোঁয়াচে রোগ থেকে বাঁচায় ভিটামিন-সি। সাথে চুল, দাঁত, নখ ভালো রাখে। আর ভিটামিন-এ চোখের জন্য উপকারী।

- Advertisment -

সর্বশেষ